Hoichoi: গুপ্তধন আর ভূতই কি এক করবে চৌধুরী পরিবারকে?

একান্নবর্তী পরিবারের চল এখন আর নেই বললেই চলে। চাকরি, বিভিন্ন সমস্যা কিংবা পরিস্থিতির চাপে ভাঙতে ভাঙতে প্রায় সবই এখন অণু-পরিবার। নিজের পরিবারকে একজায়গায় করতে কী কীর্তি করবেন দাদু? গতকাল, ১৭ই মার্চ মুক্তি পেল Hoichoi ওটিটি প্ল্যাটফর্মের নতুন ওয়েবসিরিজ ‘দাদুর কীর্তি’র ট্রেলার।

ট্রেলারে স্পষ্ট, মানুষ থাকুক বা না-থাকুক, চৌধুরীবাড়ীতে ভূত আছে। তবে গল্পের বইয়ের ভূতের বাড়ীর থেকে কিন্তু অনেকটাই আলাদা এই চৌধুরীবাড়ী। বাড়ীর কেয়ারটেকার রফিকের চরিত্রে অভিনয় করছেন সত্যম ভট্টাচার্য।

পূর্বপুরুষ হেমনাথ চৌধুরীর জমানো গুপ্তধনের লোভ দেখিয়ে, পরিবারসহ ছেলেমেয়েদের এই বাড়ীতে টেনে আনেন সতীনাথ চৌধুরী (পরাণ বন্দ্যোপাধ্যায়) এবং তাঁর স্ত্রী সন্ধ্যা চৌধুরী (অনসূয়া মজুমদার)। সেই গুপ্তধনের হদিশ পাবে পরিবারেরই কেউ, এমনই নাকি বলেছিলেন হেমনাথ।

তবে কেবল গুপ্তধন আর ভূত নয়, এ সিরিজ ছুঁয়ে যাবে মাওবাদী কার্যকলাপকেও।

তাছাড়াও এ সিরিজ গল্প বলবে সম্পর্কের। এই ভূতুড়ে বাড়ীটাকে বড় ভালবাসে রফিক। তার সঙ্গে আবার এক মিষ্টি সম্পর্ক তৈরী হয় পৃথার (সৃজলা গুহ)।

এমনই টুকরো টুকরো আবেগ মিশিয়ে পারিবারিক গল্পের এই সিরিজটি তৈরী করেছেন পরিচালক রাহুল মুখোপাধ্যায়।

আবেগের সঙ্গে পরিচালক মিশিয়েছেন কিছু চমকও। এছবিতে প্রথমবারের জন্য প্লেব্যাক করছেন সত্যম ভট্টাচার্য্য এবং পরাণ বন্দ্যোপাধ্যায়।

প্রথমবারের মতই, মাও নেতার চরিত্রে অভিনয় করেছেন অভিনেতা চন্দন সেন। সিরিজে মুখ্য চরিত্রে দেখা যাবে, শান্তিলাল মুখার্জী, জয়তী চক্রবর্তী, ঋতব্রত মুখার্জী, তনিষ্কা তিওয়ারি, চান্দ্রেয়ী ঘোষ, কাঞ্চন মল্লিক, সোহম মৈত্র, আভেরী সিংহ রায়, দুর্বার শর্মা, অয়ন ভট্টাচার্য্য প্রমুখকে।

পরিচালনার পাশাপাশি, গল্পের কাহিনী এবং চিত্রনাট্যেও ভূমিকা রয়েছে রাহুল মুখোপাধ্যায়ের। মিউজিকের দায়িত্বে রয়েছেন নীলায়ন চ্যাটার্জী।

‘Maansi Entertainment Studio’ প্রযোজিত এই ওয়েবসিরিজটি দেখা যাবে Hoichoi ওটিটি প্ল্যাটফর্মে। আগামী ২৯শে মার্চ মুক্তি পেতে চলেছে এই ওয়েবসিরিজটি। আশা করাই যায়, গুপ্তধন আর ভূতের গল্প পড়া বাঙালির মন কাড়বে এই সপরিবারে দেখার মত সিরিজ।

Author

  • Debasmita Biswas

    বেথুন কলেজ থেকে উদ্ভিদবিদ্যায় স্নাতক। পড়ার নেশা ছোট থেকে, প্রাথমিকভাবে লেখালেখির শুরু শখেই। তারপর সংবাদপত্র, পত্র-পত্রিকায় সমালোচনা পড়ার অভ্যাস আর বিভিন্ন নাটক, সিনেমা দেখার পর বিশ্লেষণ করার শখ থেকেই ইচ্ছে সমালোচক হওয়ার। বিনোদনজগতের বিভিন্ন খবর করার পাশাপাশি নাটক এবং সিনেমা দেখে তার গঠনমূলক সমালোচনাও করেন তিনি।

Scroll to Top