কলকাতার বুকে শিল্প-প্রদর্শনীর উদ্বোধন করল ‘প্রিন্সেপস’

কলকাতা শিল্পসংস্কৃতির শহর, এমন কথা বলেন অনেকেই। এবার আরো একবার সেকথার প্রমাণ দিল প্রথমসারির অ্যাভান্ট গার্ড আর্টহাউস ‘প্রিন্সেপস’। গতকাল, ২৯শে মার্চ উদ্বোধন করা হয়েছে ‘দ্য রেট্রোস্পেক্টিভ অফ গোবর্ধন অ্যাশ’।

প্রদর্শনীটি উদ্বোধন করেছেন অভিনেত্রী মুনমুন সেন এবং তাঁর কন্যা অভিনেত্রী রিয়া সেন। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন শ্রী ইন্দ্রজিৎ চট্টোপাধ্যায়, ব্রিজেশ্বরী কুমারী গোহিল, ইনা পুরী, রিচা আগরওয়াল এবং আরো অনেকে।

এই প্রদর্শনীতে ১৯২৯ সাল থেকে ১৯৬৯ সালের মধ্যেকার সময়টা ফুটে উঠবে শিল্পী গোবর্ধন অ্যাশের বিভিন্ন শিল্পকর্মের মধ্য দিয়ে। জনসাধারণের জন্য এই প্রদর্শনী একেবারেই উন্মুক্ত, বিনা প্রবেশমূল্যেই ঘুরে দেখা যাবে শিল্পসংগ্রহগুলি।

‘কলকাতা সেন্টার অফ ক্রিয়েটিভিটি’তে এই প্রদর্শনী অনুষ্ঠিত হচ্ছে ২৯শে মার্চ থেকে ২১শে এপ্রিল। স্কেচ, ল্যান্ডস্কেপ, সেলফ পোর্ট্রেট, পোর্ট্রেটসহ শিল্পীর বিভিন্ন আকর্ষণীয় শিল্পকলার সম্ভার সাজানো থাকবে দর্শকদের জন্য। গোবর্ধন অ্যাশের শৈল্পিক চেতনা, আধুনিকীকরণের লক্ষ্যে তাঁর উদ্যোগ, তাঁর ঘরানার সঙ্গে পরিচয় হবে দর্শকদের।

এবিষয়ে কথা বলতে গিয়ে কিউরেটর শ্রী ইন্দ্রজিৎ চট্টোপাধ্যায় জানান, ‘এই প্রদর্শনীর মাধ্যমে বাংলার শিল্পকে তুলে ধরছে প্রিন্সেপস। বিখ্যাত অবতার সিরিজসহ, গোবর্ধন অ্যাশের চারদশক ধরে তৈরী করা অন্তত ১০০টা শিল্পকর্ম রয়েছে এই প্রদর্শনীতে। এই রেট্রোস্পেক্টিভের মাধ্যমে আমরা শিল্পের ইতিহাসে তাঁর অবদানটাকে উদযাপন করতে পারছি।’

ভারতীয় শিল্পের ইতিহাসে গোবর্ধন অ্যাশ এক স্তম্ভের নাম। বেগমপুরের অতিসাধারণ এক পরিবারে জন্মগ্রহণ করেও, নিজের সারা জীবন তিনি উৎসর্গ করেছেন শিল্পের উদ্দেশ্যে। এই রেট্রোস্পেক্টিভের হাত ধরে তাঁর চারদশকের এই শৈল্পিক যাত্রার সঙ্গী হতে পারবেন দর্শকেরা।

Author

  • Debasmita Biswas

    বেথুন কলেজ থেকে উদ্ভিদবিদ্যায় স্নাতক। পড়ার নেশা ছোট থেকে, প্রাথমিকভাবে লেখালেখির শুরু শখেই। তারপর সংবাদপত্র, পত্র-পত্রিকায় সমালোচনা পড়ার অভ্যাস আর বিভিন্ন নাটক, সিনেমা দেখার পর বিশ্লেষণ করার শখ থেকেই ইচ্ছে সমালোচক হওয়ার। বিনোদনজগতের বিভিন্ন খবর করার পাশাপাশি নাটক এবং সিনেমা দেখে তার গঠনমূলক সমালোচনাও করেন তিনি।

Scroll to Top