Kolonko Review: সত্যি আর সন্দেহের এই খেলায় জিতল কে?

একটা ভাল দই জমতে জমতে যদি সামান্যও জল কেটে যায়, তাহলে যেমন মনখারাপ হয়, এই সিরিজ দেখে তেমনটা হতেই পারে।

চৈতী (রাইমা সেন) আর রঙ্গনের (ঋত্বিক চক্রবর্তী) ২০ বছরের সুখী দাম্পত্যজীবন। যেকোনো পরিস্থিতিতেই পরস্পরের কাছে সত্যি বলতে চুক্তিবদ্ধ তারা। কিন্তু কঙ্কনাকে (সৃজলা গুহ) ভাললাগার কথা রঙ্গন চৈতীকে জানালে, সেই সত্যি সহ্য করতে পারে না সে। সেখান থেকেই মিথ্যের শুরু। শুরু এই সিরিজের গল্পেরও।

গল্প যত এগিয়েছে, বাঁধুনী ততই মজবুত হয়েছে। গোটা সিরিজে রহস্যের আমেজ ধরে রাখার বিষয়টি বেশ ভাল লেগেছে। ভালো লেগেছে মুখ্য চরিত্রে ঋত্বিক চক্রবর্তী এবং রাইমা সেনের অভিনয়ও। তবে মনে রাখার মত অভিনয় করেছেন বিয়াস ধর (পিয়া)। মা’কে ঠকানোয় বাবার প্রতি রাগ, মায়ের নিস্পৃহতায় মায়ের প্রতি ঘৃণা, ভাইয়ের প্রতি ভালবাসা-যত্ন, সবটাই সুন্দরভাবে ফুটিয়ে তুলেছেন বিয়াস। আর প্রতিমুহূর্তে তাঁকে যোগ্য সঙ্গত দিয়েছেন সৃজলাও। তাঁদের অভিব্যক্তি, কথা বলার ধরন আলাদা একটা মাত্রা যোগ করেছে সিরিজটিতে। অম্বরীশ ভট্টাচার্য (বাসব) এবং অদিতি চ্যাটার্জী (তিথি) ভাল অভিনয় করেন বরাবরই। তবে এবারে চেনা ছকের বাইরের চরিত্রে একটু বেশীই মন কাড়লেন তাঁরা। তেমন কিছু করার ছিল না গৌরব চক্রবর্তীর (বিহান), স্বল্প পরিসরে তিনি যথাযথ। তবে চৈতীর অস্বতঃস্ফূর্ততা দেখেও কেন বিহানের মত শার্প ছেলের একবারও সন্দেহ হয়নি, তা ভাবায় দর্শককে।

বেশ ভাল লেগেছে সিরিজের প্রতিটি মুখ্য চরিত্রের নিজের সঙ্গে নিজের দ্বন্দের, কথোপকথনের বিষয়টিও। তবে কিছু কিছু স্থানে হয়ত একটু সংক্ষিপ্ত হতে পারত এই দৃশ্য। সিরিজের শুরুতেই একজনের রক্তমাখা হাত ধোয়ার একটি দৃশ্য রয়েছে, যে দৃশ্য দেখা গিয়েছিল ট্রেলারেও। তবে এই দৃশ্যসহ আরো কিছু দৃশ্যের বারংবারের পুনরাবৃত্তি একটু একঘেয়ে লাগে।

তাছাড়া পিয়ার কাছে হাতখরচের জন্য কতটা টাকা থাকলে সে এত খরচ করতে পারে, সেটাও একটা প্রশ্ন। কঙ্কনার ব্যাকগ্রাউন্ড, অত বড় সাজানো গোছানো বাড়ীতে সে একা কেন থাকে, প্রশ্ন থেকে যায় এসবও। সিরিজের দ্বিতীয় সিজন আসলে অবশ্য উত্তর পাওয়ার একটা সম্ভাবনা থাকে।

কিন্তু এসব সত্ত্বেও, এই সিরিজে একটা অন্যধরনের গল্প বুনতে সফল হয়েছেন সাহানা দত্ত। ‘কেবল মিথ্যে বললেই সমস্যা বাড়ে, সত্যি বললে নয়’, এই চিরাচরিত ধ্যানধারণাকে প্রশ্নের মুখে ফেলেছে এই সিরিজ। চৈতীর উপলব্ধিটাই হয়ত আমাদের সকলের মনে লুকিয়ে থাকে। দাম্পত্যসম্পর্কে আমরা সত্যিটাকেও গ্রহণ করতে পারি না, আবার মিথ্যেটাকেও বিশ্বাস করতে পারি না। আর এই দুইয়ের মাঝে পড়ে তোলপাড় হয়ে যায় পিয়া-লিওর মত সন্তানদের জীবন।

‘Missing Screw’ প্রযোজিত, অভিমন্যু মুখার্জী পরিচালিত, সাহানা দত্তের কাহিনী ‘কলঙ্ক’ দেখা যাবে Hoichoi ওটিটি প্ল্যাটফর্মে।

Author

  • Debasmita Biswas

    বেথুন কলেজ থেকে উদ্ভিদবিদ্যায় স্নাতক। পড়ার নেশা ছোট থেকে, প্রাথমিকভাবে লেখালেখির শুরু শখেই। তারপর সংবাদপত্র, পত্র-পত্রিকায় সমালোচনা পড়ার অভ্যাস আর বিভিন্ন নাটক, সিনেমা দেখার পর বিশ্লেষণ করার শখ থেকেই ইচ্ছে সমালোচক হওয়ার। বিনোদনজগতের বিভিন্ন খবর করার পাশাপাশি নাটক এবং সিনেমা দেখে তার গঠনমূলক সমালোচনাও করেন তিনি।

Scroll to Top